কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

তাহাজ্জুদ ও কিয়ামুল লাইল

রমজানে কি তাহাজ্জুদ পড়া যাবে?

প্রশ্ন:-রমজানে কি তাহাজ্জুদ পরা যাবে? যদি ইশার পরে তারাবীর নামাজ কিছু বাকি রেখে শেষ রাতে আরো একটু এড করে কিছু নামাজ পড়ি তাহলে কি তা পরা যাবে? উত্তর:-তারাবীহ ও বিতর সহ ১১ বা ১৩ রাকআতে সীমাবদ্ধ থাকাই শ্রেয়। কারণ রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রামাযান অথবা অন্যমাসে এই সংখ্যায় রাতের নফল সালাত আদায় করতেন। তবে …

রমজানে কি তাহাজ্জুদ পড়া যাবে? Read More »

রাতে ঘুম থেকে জাগ্রত হওয়ার পর তাহাজ্জুদ সালাতের আগে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কী কী করতেন

প্রশ্ন: রাতে ঘুম থেকে জাগ্রত হওয়ার পর তাহাজ্জুদ সালাতের আগে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কী কী করতেন? উত্তর: তাহাজ্জুদ সালাতের আগে রাতে ঘুম থেকে জাগ্রত হওয়ার পর নবী সা. যে সব কাজ করতেন তা সংক্ষেপে নিম্নরূপ: ১. ঘুম থেকে জাগ্রত হওয়ার দুআ পড়তেন। ২. মিসওয়াক করতেন। ৩. ওযু করতেন ৪. সূরা আলে ইমরানের ১৯০ …

রাতে ঘুম থেকে জাগ্রত হওয়ার পর তাহাজ্জুদ সালাতের আগে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কী কী করতেন Read More »

বিতর ও তাহাজ্জুদ সম্পর্কে দুটি প্রশ্নের উত্তর

১ম প্রশ্ন: কেউ যদি ১ম রাতে ইশার সালাত আদায় শেষে বিতর পড়ে ঘুমিয়ে যায়। তারপর রাতে উঠে তাহাজ্জুদ আদায় করে। তাহলে কি পূণরায় বিতর পড়তে হবে? উত্তর: সাধারণ নিয়ম হল, কেউ যদি তাহাজ্জুদের সালাত আদায় করার নিয়ত করে তাহলে বিতর সালাত আদায় করবে না। বরং তাহাজ্জুদ পড়ার পর বিতর আদায় করবে। অর্থাৎ বিতর যেন হয় …

বিতর ও তাহাজ্জুদ সম্পর্কে দুটি প্রশ্নের উত্তর Read More »

তাহাজ্জুদ সালাতের বিধি-বিধান

🌕 ফযীলত : ফরজের পরে তাহাজ্জুদের সালাত আল্লাহ তায়ালার নিকট সবচেয়ে প্রিয়। এটি নিরাপদে জান্নাত লাভের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায়। 🌕 সময় : অর্ধ রাতের পরে। রাতের শেষ তৃতীয়াংশে পড়া উত্তম। তবে ঘুম থেকে না জাগার সম্ভাবনা থাকলে ইশা সালাতের পর দু রাকআত সুন্নতের পর ও বিতরের আগে তা পড়ে নেয়া জায়েজ আছে। 🌕 রাকআত সংখ্যা : সর্ব নিম্ন …

তাহাজ্জুদ সালাতের বিধি-বিধান Read More »

তারাবীর নামাযের রাকাত সংখ্যা

প্রশ্ন : আমি প্রশ্নটি আগেও করেছিলাম। আশা করি এর উত্তর দিয়ে আমাকে উপকৃত করবেন। কারণ এর আগে আমি সন্তোষজনক জবাব পাইনি। প্রশ্নটি তারাবীর নামায সম্পর্কে। তারাবীর নামায কি ১১ রাকাত, নাকি ২০ রাকাত? সুন্নাহ অনুযায়ী তো তারাবীর নামায ১১ রাকাত । শাইখ আলবানী রহিমাহুল্লাহ “আলক্বিয়াম ওয়াত তারাউয়ীহ” বইতে বলেছেন তারাবী নামায ১১ রাকাত। এখন কিছু …

তারাবীর নামাযের রাকাত সংখ্যা Read More »

যিনি শেষ রাতে তাহাজ্জুদ আদায় করতে চান তিনি কি ইমামের সাথে বিতিরের নামায পড়বেন?

প্রশ্ন: আমি একজন মুসলিম নারী। আমি নিয়মিত তারাবী সালাত আদায় করি। আমি যদি সালাত আদায় করতে মসজিদে না যাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমার ছোট ভাই সেও মসজিদে যায় না। মসজিদে গেলে আমরা ইমামের সাথে বিতিরের সালাত আদায় করি। আমি শেষ রাতে উঠে তাহাজ্জুদের সালাত আদায় ও কুরআন তিলাওয়াতের অভ্যাস গড়ে তুলেছি। তবে বিতিরের সালাত আদায় করার …

যিনি শেষ রাতে তাহাজ্জুদ আদায় করতে চান তিনি কি ইমামের সাথে বিতিরের নামায পড়বেন? Read More »

তারাবীর নামায ও কিয়ামুল লাইল কি এক জিনিশ

প্রশ্ন : আমি কিয়ামুল লাইল ও তারাবীর নামাযের মধ্যে পার্থক্য জানতে চাই। উত্তর : সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য। তারাবীর নামায কিয়ামুল লাইলের অন্তর্ভুক্ত। এ দুইটি পৃথক কোন সালাত নয়, যেমনটি অনেক সাধারণ মানুষ ধারণা করে থাকেন। বরং রমজান মাসে যে ‘কিয়ামুল লাইল’ করা হয় সেটাকে ‘সালাতুত তারাবী’ বা বিরতিপূর্ণ নামায বলা হয়। কারণ সলফে সালেহীন …

তারাবীর নামায ও কিয়ামুল লাইল কি এক জিনিশ Read More »

একই রাতে কি দুইবার বিতির নামায পড়া যাবে; যদি কেউ ইমামের সাথে বিতির নামায পড়ার পর আবার নামায পড়ে

প্রশ্ন: পর সমাচার আমি জিজ্ঞেস করতে চাই যে, তারাবির নামাযের শেষে আমরা জোড় সংখ্যক  ও বিতির (বেজোড় সংখ্যক) নামায আদায় করি। আমি শুনেছি যে, আমাদের সর্বশেষ নামায বিতির বা বেজোড় সংখ্যা হওয়া আবশ্যক। এর মানে এটা যে, আমরা যদি রাতে আরও নামায পড়ি তখন জোড়ের সাথে বিতির (বেজোড়) নামায আবার পড়ব? নাকি বিতির নামায প্রথমে …

একই রাতে কি দুইবার বিতির নামায পড়া যাবে; যদি কেউ ইমামের সাথে বিতির নামায পড়ার পর আবার নামায পড়ে Read More »

বিতিরের নামায কি সালাতুল লাইল (রাতের নামায) থেকে আলাদা কিছু

প্রশ্ন: বিতিরের নামায ও রাতের নামাযের মধ্যে কোন পার্থক্য আছে কি? উত্তর: আলহামদুলিল্লাহ। বিতিরের নামাযও এক প্রকার রাতের নামায। তবে, তারপরেও রাতের নামাযের সাথে বিতিরের নামাযের কিছু পার্থক্য রয়েছে। শাইখ বিন বায (রহঃ) বলেন: বিতিরের নামায একপ্রকার রাতের নামায, এটি আদায় করা সুন্নত এবং এটি রাতের নামাযের সর্বশেষ নামায। বিতিরের নামায এক রাকাত; যে একরাকাত …

বিতিরের নামায কি সালাতুল লাইল (রাতের নামায) থেকে আলাদা কিছু Read More »

তারাবীর নামায শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইমামের অনুসরণ করা

প্রশ্ন: অগ্রগণ্য মতানুযায়ী তারাবী নামায যদি ১১ রাকাত হয়; কিন্তু আমি এক মসজিদে নামায পড়েছি সেখানে ২১ রাকাত তারাবী পড়া হয়। এমতাবস্থায়, আমি কি ১০ রাকাত পড়ে মসজিদ ত্যাগ করতে পারি; নাকি আমার জন্য তাদের সাথে ২১ রাকাত নামায পড়াই উত্তম? আলহামদুলিল্লাহ। উত্তম হচ্ছে ইমামের সাথে সম্পূর্ণ নামায আদায় করা, যতক্ষণ না ইমাম নামায শেষ …

তারাবীর নামায শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইমামের অনুসরণ করা Read More »

রমযান মাসে কিয়ামুল লাইল এর ফযিলত

প্রশ্ন: রমযান মাসে কিয়ামুল লাইল এর ফযিলত কি? উত্তর: আলহামদুলিল্লাহ। রমযান মাসে কিয়ামুল লাইল পালন করার ফযিলত: আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন: রাসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি্ ওয়া সাল্লাম রমযান মাসে কিয়ামুল লাইল পালন করার প্রতি উদ্বুদ্ধ করতেন; তবে দৃঢ়ভাবে নির্দেশ দিতেন না। এরপর তিনি বলতেন: যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে ও সওয়াবের আশা নিয়ে রমযান …

রমযান মাসে কিয়ামুল লাইল এর ফযিলত Read More »

নারীদের তারাবী নামায পড়ার বিধান

প্রশ্ন: নারীদের উপরে কি তারাবীর নামায আছে? তাদের জন্যে তারাবীর নামায বাসায় পড়া উত্তম? নাকি মসজিদে গিয়ে পড়া? উত্তর: আলহামদুলিল্লাহ। তারাবীর নামায সুন্নতে মুয়াক্কাদা। নারীদের জন্যে কিয়ামুল লাইল (রাতের নামায) ঘরে পড়া উত্তম। যেহেতু নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: “নারীদেরকে মসজিদে যেতে বাধা দিও না। তবে, তাদের জন্য ঘরই উত্তম।”[হাদিসটি আবু দাউদ তাঁর ‘সুনান’ …

নারীদের তারাবী নামায পড়ার বিধান Read More »

তারাবীর নামাযে দুর্বল, বয়োবৃদ্ধ ও এদের পর্যায়ভুক্ত অন্যদের অবস্থা বিবেচনায় রাখা

প্রশ্ন: তারাবীর নামাযে দুর্বল, বয়োবৃদ্ধ ও এদের পর্যায়ভুক্ত অন্যদের অবস্থা বিবেচনায় রাখা কি ইমাম সাহেবের কর্তব্য? উত্তর: আলহামদুলিল্লাহ। তারাবী কিংবা ফরয নামায সকল নামাযের ক্ষেত্রে এ বিষয়টি বিবেচনায় রাখা উচিত। যেহেতু নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “তোমাদের কেউ যখন লোকদের ইমামতি করে তখন সে যেন হালকাভাবে নামায আদায় করে। কেননা তাদের মধ্যে রয়েছে দুর্বল, …

তারাবীর নামাযে দুর্বল, বয়োবৃদ্ধ ও এদের পর্যায়ভুক্ত অন্যদের অবস্থা বিবেচনায় রাখা Read More »

রমাযানে তারাবীহ পড়ার পর আবার তাহাজ্জুদ পড়তে চাইলে তার সঠিক পদ্ধতি

প্রশ্ন: রমাযান মাসে রাতে বেশি বেশি নফল ইবাদত করা উত্তম। এখন আমি যদি তারাবীহ পড়ার পর ভোররাতে আবার তাহাজ্জুদ পড়তে চাই তাহলে কি ঠিক হবে? ঠিক হলে কিভাবে পড়ব দয়া করে বুঝিয়ে বলবেন। উত্তর: রমযান মাসে অধিক পরিমাণে কিয়ামুল লায়ল বা রাতের নফল সালাত আদায় করা অত্যন্ত ফযিলত পূর্ণ কাজ। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম …

রমাযানে তারাবীহ পড়ার পর আবার তাহাজ্জুদ পড়তে চাইলে তার সঠিক পদ্ধতি Read More »