কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।। সম্মানিত ভিজিটর যেকোন প্রকারের যোগাযোগের জন্য অনুগ্রহ করে "যোগাযোগ মেনু" অথবা "Facebook Chat" বাটন ব্যবহার করুন।।

বিয়েতে সহযোগিতা করা

প্রশ্ন: আমরা হোয়াটসএপ গ্রুপের মাধ্যমে দ্বীনদার যুবক-যুবতীদেরকে আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে বিবাহে সহযোগিতা করে থাকি (অর্থাৎ ঘটকালীর দায়িত্ব পালন করে থাকি)। প্রশ্ন হল, আমরা যদি ভালোভাবে দ্বীন পালন করে না এমন যুবক-যুবতীদেরকে বিবাহের ক্ষেত্রে সাহায্য করি তাহলেও কি সওয়াব পাওয়া যাবে না কি এতে আমাদের গুনাহ হবে?

উত্তর:
বিয়ের অন্যতম উপকার হল, এর মাধ্যমে ব্যক্তি ও সমাজ পরিচ্ছন্ন ও পবিত্র থাকে। সমাজে অশ্লীলতা ও নোংরামি কমে যায়। সুতরাং এ ক্ষেত্রে পারষ্পারিক সাহায্য-সহযোগিতা করা নি:সন্দেহে উত্তম কাজ।
সুতরাং দ্বীনদার ছেলে-মেয়েদেরকে এ ক্ষেত্রে সহযোগিতা করা অধিক উত্তম। কিন্তু যদি কোন মুসলিম ছেলে/মেয়ে অতটা তাকওয়াবান ও দ্বীনদার নাও হয়- যারা হয়ত কিছু গুনাহের কাজে জড়িয়ে আছে তাদেরকেও বিবাহের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করলে সওয়াব পাওয়া যাবে ইনশাআল্লাহ। কেননা হতে পারে বিয়ের মাধ্যমে তারা সংশোধিত হবে, পাপকাজ থেকে ফিরে আসবে এবং জীবনকে সঠিক পথে পরিচালনা করবে। অনেক যুবক-যুবতীর বিয়ের আগের অবস্থা থেকে বিয়ের পরের অবস্থা সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে তার অসংখ্য উদাহরণ রয়েছে।
তবে যদি আপনারা বিয়ের পরও নব দম্পতীকে দ্বীনের পথে পরিচালিত করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন এবং এ ক্ষেত্রে তাদেরকে সাহায্য করেন এতে আপনারা বিয়ে করার ক্ষেত্রে সাহায্য করার সওয়াবের পাশাপাশি দাওয়াতি কাজেরও সওয়াব অর্জন করবেন ইনশাআল্লাহ।
আল্লাহু আলাম।
————
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানি
জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।।

Share This Post
Menu
ইসলামী প্রশ্নোত্তর
Menu
error: